লাখ টাকার স্মার্টফোন সম্পর্কে জেনে নিন

|

লাখ টাকার স্মার্টফোন সম্পর্কে জেনে নিন

স্মার্টফোনের বাজারে আসছে নিত্য নতুন ডিভাইস। এর কোনোটার দাম হাতের নাগালে। কোনোটা আবার আকাশচুম্বী।

অ্যাপেল, স্যামসাংয়ের মতো বিভিন্ন কোম্পানির একাধিক স্মার্টফোনের দাম লাখ টাকারও বেশি। খুব বেশি মানুষ এই ফোন না কিনলেও, এই ফোনগুলো সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন কৌতূহল। দেখে নিন লাখ টাকার বেশি দামের সেই স্মার্টফোনগুলো।

অ্যাপেল আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স ৫১২ জিবি
ফোনটিতে রয়েছে ৬.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে। এতে ১৩ চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে। ১২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা রয়েছে ও ১২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। এ ছাড়া ও আছে ফেস আইডি ও ওয়্যারলেস চার্জিং।

অ্যাপেল আইফোন ১১ প্রো ৫১২ জিবি
এই ফোনটির দাম লাখ টাকারও বেশি। এতে ৫.৮ ইঞ্চির ডিসপ্লে রয়েছে ।  এ ছাড়া আছে এ১৩ চিপসেট। ছবি তোলার জন্য ১২ মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা ও ১২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। এই ফোনটিতেও ফেস আইডি ও ওয়্যারলেস চার্জিং সুবিধা ব্যবহৃত হয়েছে।

মোটোরোলা রেজার 
সোয়া লাখ টাকা দামের এই ফোনে ৬.২ ইঞ্চির ডিসপ্লে রয়েছে। ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ রয়েছে । ছবির জন্য ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে। ফোল্ডিং ডিসপ্লের ফোনটিতে ২,৫১০ এমএএইচ ব্যাটারি দেয়া হয়েছে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস (১টিবি)
লাখ টাকা দামের এই ফোনে ৬.৪ ইঞ্চির ডিসপ্লে দেয়া হয়েছে।  স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ মডেলের চিপসেট আছে। র‌্যাম আছে ১২ জিবি। ছবির জন্য আছে ১২ মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা ও ১২ মেগাপিক্সেল ডুয়াল সেলফি ক্যামেরা। ব্যাকআপের জন্য ৪,১০০ এমএএইচ ব্যাটারি আছে ।

স্যামসাং গ্যালাক্সি যেড ফ্লিপ
বিলাসবহুল এই ফোনে ৬.৭ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস ডাইনামিক ওলেড ফোল্ডেবল ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। ৮ জিবি র‌্যাম ও আছে। ছবির জন্য ১২ মেগাপিক্সেল + ১২ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা আছে । সেলফির জন্য আছে ১০ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। ব্যাটারি আছে ৩,৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের।

আইফোন এক্সএস ম্যাক্স ৫১২জিবি
এই ফোনটিতে ৬.৫ ইঞ্চির সুপার রেটিনা ডিসপ্লে সংযোজন করা হয়েছে। আছে এ১২ চিপ। এতে ফোর্স টাচ প্রযুক্তির সংমিশ্রণ ঘটানো হয়েছে। আছে ডুয়াল ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং ফেস আইডি।










Leave a reply